তুমুল ব্যস্ততার জন্যে এইটা ওইটা ভুলে যাওয়া নতুন কিছু ছিল না। দুশ্চিন্তা সুচিন্তা সব কিছু আমাদেরকে ব্যতিব্যস্ত রাখে। আমাদের যখন ক্লান্তি পায় আমরা ঘুমিয়ে যাই তখন আমরা ভুলে যাই অনেক কিছু, হয়ত আজ প্রিয় কারোর জন্মদিন ছিল আমাদের মনে থাকে না। হয়ত কারোর হোমওয়ার্ক করার কথা ছিল ভুলে গিয়েছে প্রায়ই স্কুলে গিয়ে টিচারের কাছে বকা খাচ্ছে। আমি ভুলে যেতাম অনেক কিছু। 

আমি প্রায়ই পড়া ভুলে যেতাম কারণ মুখস্থ বিদ্যা আমার কোন কালেই ছিল না। মা আমাকে রোজ রোজ পড়াতেন আর লেখাতেন, যার জন্যে আজ হাতের লেখা দেখে কেউ ভালো বললে মা’র দিকে তাক করে বলি, “আমার মা আমার হাতের লেখা”। আমি যাতে বীজগণিতের সূত্রগুলো না ভুলে যাই তাই মা আমাকে সাদা কাগজে কয়েকবার লেখাতেন পরে সেটি আমার পড়ার টেবিলের সামনে আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিয়েছিলেন। সেই স্টিকির অভ্যাসটা জাপ্টে ধরে বেড়ে উঠে। আমার পড়ার টেবিলে একসময় কাগজ কলম স্কেলের পাশে জায়গা করে নেয় হলুদ বর্ণ চারকোণা কাগজ। বিল্ট ইন আঠা স্মার্ট কাগজ আঠা লাগানোর আর দরকার হলো না। আমার অফিসের ডেস্কে এমন কাগজে কাজ করে যাই। আজকাল কোন কাজ ভুলে যেতে পারি না। এই হলুদ কাগজ গুলো আমার করণীয় কাজগুলো মনে করিয়ে দেয়। 

আজকাল অফলাইন টুকাটুকি বাইরে অনলাইন টুকাটুকি চলে এইটা ওইটা আমি এভার নোটে লিখে রাখি। যা আমি সব সময় দেখতে পাই যেখানে থাকি। আমি একজায়গাতে লিখে রাখি সেটি সব জায়গাতে কপি হয়ে যাচ্ছে। তাই আজ আমার কাজ ভুলে যাওয়ার দিন শেষ হয়ে গেছে। 

https://www.evernote.com/

Advertisements